আমার সর্বনাশ

বালিকা তোর হরিণী চোখে প্রশস্তির কারুকার্য…
তোর হরিণী  চোখে অকাল বসন্ত খেই হারিয়ে মাতাল হয়ে ছোটে…..
তোর হরিণী চোখে নৌকার মাস্তুল নত হয়ে হারিয়ে যায় অলকানন্দার বাঁকে…
তোর হরিণী চোখে হিংসে করে হুতুম পেঁচা বিদ্রুপ  হাসি হাসে..
আমি অপেক্ষায় যেদিন পাবো দেখা  এই হরিণী চোখ…
সেদিন দুজনে হারিয়ে যাবো এক ভালোবাসায় অমোঘ…
যেদিন তোমার গোলাপী ঠোঁট আমার স্পর্শে সিক্ত হয়েছিল..
সেদিন তোমার ঠোঁটে দেখেছিলাম  আমার সর্বনাশ..
সারারাত জেগে স্বপ্ন দেখেছিলাম…
তোমার কামিনী ঠোঁটে করতে চেয়ে রাত্রি বাস…
সেদিন আবারো তোমার ঠোঁটে দেখেছিলাম আমার সর্বনাশ…
যেদিন তুমি আমায় বলেছিলে তোমার মাঝে আমার হিয়ার বাস..
সেদিন আমি তোমার চোখে দেখেছিলাম আমার সর্বনাশ..
যেদিন তুমি বলেছিলে এক ফালি চাঁদ তোমার দিকে চেয়ে করুন হাসি হাসে..
সেদিন আমি বুঝে ছিলাম তুমি আমি হারিয়ে যাব কোন এক চৈত্র  মাসে..
যেদিন তুমি দিয়েছিলে আমার হাতে তোমার হাত…
সেদিন আমি বুঝে ছিলাম আমি আর তুমি বসন্তের হাওয়ায় হারিয়ে যাব নির্ঘাত..
যেদিন তুমি বলেছিলে আমায় ছাড়া মুশরে পড়ে হেমন্তের সব শিশির ভেজা ঘাস..
সেদিনও আমি তোমার চোখে দেখেছিলাম আমার সর্বনাশ..
যেদিন তুমি আমায় বলেছিলে তোমার মাঝে আমার হেয়ার বাস..
সেদিন আমি তোমার চোখে দেখেছিলাম আমার সর্বনাশ

পোষ্টটি কেমন লাগল?

মতামত দিতে আপনাকে অবশ্যই লগিন থাকতে হবে।

গড় মান 5 / 5. মোট মতামত 1

আপনিই প্রথম মতামত দিন।

আপনার ভালো লাগেনি শুনে দুঃখিত!

কিভাবে উন্নতি করা যায়?

কিভাবে আরও উন্নত করা যায়, সে সমন্ধে আপনার মতামত দিন।

Author: RAHUL MONDAL

Leave a Reply